২০৪১ সালে দারিদ্র শব্দটি পাওয়া যাবে ইতিহাসের বইয়ে

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেছেন, দেশের কোথাও কোথাও সরকারি প্রশাসন এবং জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে যে বিরোধ দেখা যাচ্ছে তাতে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কারণ, প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতারা সবাই দেশপ্রেমিক। তবে সম্পর্ক অবনতির জন্য যদি কেউ দায়ী হন তার জন্য আইন হওয়া দরকার এবং বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা উচিত।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নর জবাবে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সরকারি প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে এমন বৈরিতা শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিশ্বের অন্য দেশেও এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়।

দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দ্রুত এগিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন যেভাবে উন্নয়ন হচ্ছে তাতে আগামী ২০৪১ সালে দরিদ্রতা বলতে কিছুই থাকবে না। তখন এই শব্দটি ইতিহাসের বইয়ে লিপিবদ্ধ হবে। বর্তমানে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এবং দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ বির্নিমাণে সবধরনের উন্নয়ন চলছে।

প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম চাঁদপুরসহ সারা দেশের চলমান উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কে গণমাধ্যমকর্মীদের ধারণা দেন। একই সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গজারিয়া থেকে মতলব হয়ে চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর এবং নোয়াখালী পর্যন্ত আরেকটি বিকল্প মহাসড়ক নির্মাণ করার পরিকল্পনার কথাও জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর প্রেস ক্লাব সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে চাঁদপুর শহরে মেঘনা নদীতীর সংরক্ষণ প্রকল্প এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জন্য প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় উপচার্য প্রফেসর ড. মো. নাছিম আখতারসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।