সীমান্তে এক মাসে সাড়ে ৯৬ কোটি টাকার মাদক-চোরাচালান জব্দ

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে দেশের সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৯৬ কোটি ৫০ লাখ ৩৩ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন ধরনের চোরাচালান পণ্যসামগ্রী, অস্ত্র ও গোলাবারুদ এবং মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

মঙ্গলবার (১ জুন) বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জব্দকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে আট লাখ ৯২ হাজার পিস ইয়াবা, ১৮ হাজার ৫০৮ বোতল ফেনসিডিল, ১৩ হাজার ৩৮ বোতল বিদেশি মদ, এক হাজার ৮৫৮ ক্যান বিয়ার, এক হাজার ৫৮৮ কেজি গাঁজা, ১৬ কেজি ৮৭৯ গ্রাম হেরোইন, ১৩ হাজার ৩৫৫টি উত্তেজক ইনজেকশন, চার হাজার ২৮২টি ইস্কাফ সিরাপ, ২০ হাজার ৯৯৫টি এ্যানেগ্রা বা সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং দুই লাখ আট হাজার ৬১৫টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

এতে বলা হয়, জব্দকৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে দুই কেজি ২২৬ গ্রাম স্বর্ণ, ১৪ কেজি ৪৭৮ গ্রাম রুপা, এক লাখ এক হাজার ৩১৭টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ৭২ হাজার ৮১টি ইমিটেশন গহনা, দুই হাজার ৯২৫টি শাড়ি, এক হাজার ১৮২টি থ্রিপিস/শার্টপিস, দুই হাজার ২৪৪ ঘনফুট কাঠ, ৮৫৭ কেজি চা পাতা, পাঁচ হাজার ৭৭০ কেজি কয়লা, পাঁচটি ট্রাক/কাভার্ডভ্যান, তিনটি প্রাইভেটকার/মাইক্রোবাস, চারটি পিকআপ, ১৮টি সিএনজি/ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ১০৮টি মোটরসাইকেল।

বিজিবি আরও জানায়, উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে নয়টি পিস্তল, একটি রিভলবার, দুটি এলজি, দুটি ওয়ান শ্যুটারগান, একটি পাইপগান, আটটি ম্যাগাজিন এবং ৩৬ রাউন্ড গুলি। এ ছাড়াও সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকপাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ২৭৮ জন চোরাচালানীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ১২৮ জন বাংলাদেশি নাগরিক ও তিনজন ভারতীয় নাগরিককে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।