সহযোগী আক্রান্তের পরও কোয়ারেন্টাইনে গেলেন না বরিস, ক্ষোভ ব্রিটেনে

করোনায় (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন সহযোগী। নিয়ম অনুযায়ী সেল্ফ আইসোলেশনে থাকার কথা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে। কিন্তু তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, কোয়ারেন্টাইনে যাবেন না। এতে ক্ষুব্ধ হয়েছে বিরোধীরা।

সম্প্রতি বরিসের প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক করোনা-বিধি ভেঙে পদ হারান। যদিও ম্যাটের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন বরিস। কিন্তু তাতেও পদ-রক্ষা করতে পারেননি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী পদ থেকে ম্যাটকে ইস্তফা দিতে হয়। এবারে ডাউনিং স্ট্রিটের পক্ষ থেকে সাংবাদমাধ্যমকে জানানো হয়েছে, করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এলে ১০ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার সরকারি নিয়ম রয়েছে ঠিকই, কিন্তু তা মানছেন না বরিস জনসন। কারণ আক্রান্ত ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রীর সহযোগী হলেও তিনি সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সংস্পর্শে আসেননি। যদিও ব্রিটেনের একটি দৈনিকের দাবি, দু’জনকে একাধিক অনুষ্ঠানে পাশাপাশি দেখা গেছে।

ডাউনিং স্ট্রিটের বক্তব্য, ‘‘প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নানা কাজে যান। বহু মানুষের সান্নিধ্যে আসেন। সব ক্ষেত্রেই কোভিড-বিধি মেনে চলা হয়।’’ তারা আরও দাবি করেছে, ‘‘এ পর্যন্ত কোনও কোভিড পজ়টিভ ব্যক্তির কাছাকাছি আসেননি প্রধানমন্ত্রী। সেই সাবধানতা অবলম্বন করা হয়।’’

বিরোধী লেবার পার্টির চেয়ারম্যান অ্যানেলিস ডডস বলেন, ‌‍“এটা স্পষ্ট যে, শেষবার যা ঘটেছিল তা থেকে প্রধানমন্ত্রী কিছুই শিখতে পারেননি। অন্য সকলের যে নিয়ম মেনে চলতে হবে, তিনি তার ঊর্ধ্বে থাকার কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন।