রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশ বাধ্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের নাগরিক না এবং তাদের গ্রহণ করার বিষয়ে আমাদের কোনও দায়বদ্ধতা নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।  মঙ্গলবার (৯ জুন) এক ভার্চুয়াল কনফারেন্সে তিনি একথা বলেন। ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের প্রেসিডেন্টের পদ নিয়েছে বাংলাদেশ এবং এ উপলক্ষে এই প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়।

মালয়েশিয়ার একজন মন্ত্রী সেদেশে আটকে পড়া রোহিঙ্গাদের গ্রহণ করার জন্য বাংলাদেশকে অনুরোধ করেছে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী উত্তেজিত হয়ে বলেন, ‘যারা আমাদের ফরমায়েশ করে তারা এদের নিয়ে যাক। এখানে যারা আছে আমরা তাদের আমাদের সাধ্যমতো ভালো জীবন দেওয়ার চেষ্টা করছি এবং এর বেশি কিছু করার সাধ্য আমাদের নাই। যারা এ বিষয়ে কথা বলে তারা এদের নিয়ে যাক।’

কুয়েতে লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শহীদুল ইসলাম পাপুলকে আটকের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী প্রসঙ্গ এড়িয়ে গিয়ে বলেন, ‘আমরা সরকারিভাবে কোনও তথ্য পাইনি। কোনও তথ্য পেলে আমরা জানাবো।’

ফেব্রুয়ারি মাসে সংসদ সদস্য শহীদুল ইসলামের বিরুদ্ধে কুয়েতে তদন্ত শুরু হলে ওই দেশে বাংলাদেশের দূতাবাস পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করেছিল এবং তার ভিত্তিতে তিনি বলেছিলেন, এটি ফেক নিউজ যা পরবর্তীতে মিথ্যা বলে প্রমানিত হয়। এ বিষয়ে দূতাবাসের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এদিকে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের প্রেসিডেন্ট পদ নেওয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, মার্শাল আইল্যান্ডের কাছ থেকে আমরা প্রেসিডেন্সি নিয়েছি আগামী তিন বছরের জন্য। জলাবায়ু পরিবর্তনের কারণে যেসব দেশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখিন তাদের বিষয়ে জোরালো ভাষায় কথা বলবে বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, আজকে মার্শাল আইল্যান্ড, ইথিওপিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে বৈঠক হয়েছে এবং আমরা বিভিন্ন আইডিয়া একে অপরের সঙ্গে বিনিময় করেছি।

অনুষ্ঠানে মার্শাল আইল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যাস্টেন এন নেমরা অংশগ্রহণ করেন।