রোজিনা ইসলামের জামিনের রায় ফরমায়েশি : মির্জা ফখরুল

‘অফিশিয়াল সিক্রেটস’ আইনের মামলায় সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিনের রায় ‘ফরমায়েশি’ বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। তিনি বলেন, সরকারের ইঙ্গিতে এখন বিচারব্যবস্থা চলছে।

আজ রবিবার সকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিচারব্যবস্থা এখানে কোন জায়গায় গিয়ে পৌঁছেছে। যে আইনে তাকে (রোজিনা ইসলাম) গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সেই আইন কিন্তু জামিনযোগ্য। সেই ব্রিটিশ আমলের এই আইন তারা নিয়ে এসে প্রয়োগ করেছে, সেটা প্রয়োগই হয় নাই। এটাতে জামিনযোগ্য সেকশন আছে। সেখানে তো আপনি জামিন দিচ্ছেন না, এক দিন এক দিন করে পেছাচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘কার কাছ থেকে নির্দেশ আসে তার জন্য অপেক্ষা করতে করতে আপনি জামিন দিলেন এই শর্তে যে বিদেশে যেতে পারবে না এবং পাঁচ হাজার টাকা জামানত। কেন বিদেশ যেতে পারবে না? এই রায় অবশ্যই ফরমায়েশি রায় বলে আমরা মনে করি।’

আজ রবিবার ভার্চুয়াল আদালতে শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম বাকিবিল্লাহ পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকা এবং পাসপোর্ট জমা দেওয়ার শর্তে রোজিনা ইসলামের জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ১৭ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একটি কক্ষে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে ৬ ঘণ্টা আটকে রেখে রাতে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরদিন বুধবার মহানগর আদালতে শুনানির পর জামিন এবং রিমান্ড আবেদন নাকচ করে তাকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়।

সাংবাদিকদের বর্তমান ‘অনৈক্য’র প্রসঙ্গ টেনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি, আজকেও বলছি- আপনাদের দুর্বলতার জন্য এগুলো হচ্ছে। ইউ আর নট ইউনাইটেড। আপনারা আপনাদের নিজেদের স্বার্থ সংরক্ষণ করতে পারছেন না। আপনারা আগে যেভাবে নিজের স্বার্থের জন্য দাঁড়াতেন, সেই স্বার্থের জন্য আজকে আপনারা ইউনাইটেডলি দাঁড়াতে পারেন না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এ্খন বিচারব্যবস্থা সরকার কী বলে না বলে তার ওপর নির্ভর করে- আমরা এই কথা বহুবার বলেছি যে সরকারের ইঙ্গিতে এখন বিচারব্যবস্থা চলছে। সরকার পুরোপুরিভাবে এটা নিয়ন্ত্রণ করছে, এটা দলীয়করণ হয়ে গেছে।’