রিজার্ভে ভালো রিটার্ন আসলে প্রতিবেশী দেশকে ঋণ দিতে পারে বাংলাদেশ : অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, দেশের রিজার্ভ ব্যবহার করে ভালো রিটার্ন আসলে প্রতিবেশী দেশকে ঋণ দিতে পারে বাংলাদেশ।বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে পারলে এবং ভালো মুনাফা পেলে বিদেশে অর্থ পাচার হবে না। দেশেই বিনিয়োগে উৎসাহ পাবে অনেকে।

আজ বুধবার অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ১৭তম এবং সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ২১তম সভায় অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় মোট ১০টি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।অনুমোদিত প্রস্তাবগুলো হলো:
প্রথম প্রস্তাবনা: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন (২য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় ৫ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের জন্য ৫ হাজার ইন্সট্রাক্টর টেবিল, ৫ হাজার ইন্সট্রাক্টর চেয়ার, ৮০ হাজার কম্পিউটার টেবিল এবং ১ লাখ ৬০ হাজার কম্পিউটার চেয়ার সংগ্রহ, সরবরাহ ও স্থাপন করবে সরকার। ব্যয় হবে ১০১ কোটি ২৮ লক্ষ ৪ হাজার ৩৬ টাকা।

দ্বিতীয় প্রস্তাবনা: মার্কিন জ্বালানি কোম্পানি থেকে ৩১৩ কোটি ৬৮ লাখ ৯৭ হাজার ৬৮০ টাকায় এলএনজি কিনবে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের পেট্রোবাংলা।
তৃতীয় প্রস্তাবনা: জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি ) সিঙ্গাপুরের ৪টি কোম্পানি থেকে ৫ হাজার ৭৭৪ কোটি ৪৫ লাখ টাকায় ১২ লাখ ৩৫ হাজার মেট্রিক টন পরিশোধিত জ্বালানি তেল কিনবে সরকার।
চতুর্থ প্রস্তাবনা: ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীনে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন কানাডার কোম্পানি থেকে প্রযুক্তি পণ্য কিনবে ৭৭ কোটি ৬৫ লাখ ৩২ হাজার ৭৯৬ টাকায়।
পঞ্চম প্রস্তাবনা: চীনের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংস্থা চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেডের সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের চুক্তিতে পরিবর্তনের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে।
ষষ্ঠ প্রস্তাবনা: চট্টগ্রামে কর্ণফুলি শিপ বিল্ডার্স লিমিটেডের কাছ থেকে ২৩১ কোটি ১৩ লাখ ৯৭ হাজার ৭২৬ টাকায় ৩টি প্যাসেঞ্জার ক্রুস ভেসেল কিনবে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন।
সপ্তম প্রস্তাবনা: ৮৭ কোটি ৬৩ লাখ ৬৫ হাজার ৪৩৭ টাকায় ৩০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কাফকো কিনবে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন (বিসিআইসি)।
অষ্টম প্রস্তাবনা: অনলাইন ব্যাংকিং ব্যবস্থায় মোটরযানের কর ও ফি আদায়ের জন্য সার্ভিস প্রোভাইডার হিসেবে ২১৮ কোটি ৭১ লাখ ৫০ হাজার টাকায় ৫ বছরের জন্য নিয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) পক্ষ থেকে।