মেহেরপুরে বাড়ি ভাঙচুর কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ৮

মেহেরপুর প্রতিনিধি: মেহেরপুর সদর উপজেলার শুভরাজপুর গ্রামে সাবেক ইউপি সদস্যের বাড়ি ভাঙাকে কেন্দ্র করে জেলা পরিষদের সদস্য ইমতিয়াজ আহমদ মিরন ও সাবেক ইউপি সদস্য মজনু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৮ জন আহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে সাবেক ইউপি সদস্য মজনু গ্রুপের শাহাদত হোসেন, আহসান হাবীব, কুদ্দুস আলী, জাকির হোসেন, জুল হোসেন, ইদ্রিস আলী, মানিক হসেন এবং আব্দুল মতিনকে মেহেরপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত শাহাদাত হোসেনের অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, জেলা পরিষদের সদস্য ইমতিয়াজ আহমদ মিরন জেলা পরিষদ থেকে ৭ লক্ষ টাকা বরাদ্দ নিয়ে গ্রামে ড্রেনসহ একটি রাস্তা নির্মাণের ঠিকাদারি নিয়েছেন। রাস্তা নির্মাণের জন্য রাস্তার জমি মাপার সময় সাবেক ইউপি সদস্য মজনুর বাড়ির মধ্যে কিছু আংশ রাস্তায় জায়গা ঢুকে যায়। ঐ জমি উদ্ধারের জন্য জেলা পরিষদের সদস্য মিরন ও তার লোকজন দেশি অস্ত্র নিয়ে মজনু মেম্বারের বাড়ি ভাঙচুর করে। পরে মজনু মেম্বারের লোকজন বাড়ি ভাঙচুরের প্রতিবাদ করায় উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।
খবর পেয়ে আতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামিরুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় ইমতিয়াজ আহমদ মিরন ও তার লোকজন সাংবাদিকদের লাঞ্ছিত করে মোবাইল ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে মোবাইল ক্যামেরা ফিরিয়ে দেয়।

আতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামিরুল ইসলাম জানান, সরকারি রাস্তা উদ্ধারের জন্য যথাযথ প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কেউ নিজ হাতে আইন তুলে নিতে পারবে না।