মইন-ফখরুদ্দিন আওয়ামী দস্যুদের ক্ষমতায় বসিয়েছে : রিজভী

মইন-ফখরুদ্দিন আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় বসিয়ে দিয়ে গেছে মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘মইন-ফখরুদ্দিন গংয়ের অবৈধ সরকার দুই বছর দেশকে ছিন্নভিন্ন করেছে। মাস্টারপ্ল্যানের অংশ হিসেবে ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে একটি পাতানো নির্বাচনের মাধ্যমে তাদের বশংবদ আরেক গণতন্ত্র হত্যাকারী ও লুটেরাগোষ্ঠী-আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় বসিয়ে দিয়ে গেছে।’

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘১১ জানুয়ারি ছিল বাংলাদেশের ইতিহাসে এক অভিশপ্ত কালো দিবসের ১৪ বছর পূর্তি। গণতন্ত্র হত্যা, মানুষের অধিকার হরণ করে দেশকে নিক্ষেপ করেছিল একটা অন্ধকার গহ্বরে। দেশপ্রেমিক গণতান্ত্রিক শক্তিকে নির্মূল করার জন্য দীর্ঘদিনের দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র-চক্রান্তের নীলনকশা বাস্তবায়ন করেছে মইন-ফখরুদ্দিন গংয়ের তথাকথিত অবৈধ সরকার।’

তিনি বলেন, ‘গত এক যুগ ধরে এ আওয়ামী দস্যুরা ওয়ান-ইলেভেনের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে জনগণের মধ্যে বিচ্ছেদ, বিনাশ, ব্যবধান সৃষ্টি করে একদলীয় ফ্যাসিজমের ন্যায় জালিমের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করেছে। তথাকথিত ওয়ান-ইলেভেনের পর পথ হারিয়েছে বাংলাদেশ, জনগণ হারিয়েছে গণতন্ত্র, মানবিক মর্যাদা ও ন্যায়বিচার।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবুল খায়ের ভূঁইয়া, সাহিদা রফিক, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ।