ভারতে আবারও ভয়াবহ রূপ নিতে যাচ্ছে করোনা

বছর ঘুরতেই ভারতে আবারও দাপট দেখাতে শুরু করেছে করোনা। লকডাউনের সিদ্ধান্তে অনড় হতে চলেছে দেশটির বিভিন্ন এলাকা। নাগপুরে করোনার বাড় বাড়ন্ত এতটাই বেশি যে দ্বিতীয় ঢেউ আটকাতে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার প্রশাসন।

পাশাপাশি মহারাষ্ট্রের একাধিক অঞ্চলে পূর্ণ লকডাউন হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ করা হল মহারাষ্ট্রের নাগপুর শহর। বৃহস্পতিবার করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৮৬ শতাংশ।  জরুরি ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ছাড়া বন্ধ থাকবে গোটা শহরই। কর্মচারীদের বাড়ি থেকে কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার শুরুতেই, মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ফের লকডাউনের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। পাশাপাশি বলেছিলেন, এখন সাবধান হোন। যদি লকডাউন না চান তাহলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

কিন্তু করোনার নতুন স্ট্রেইন এমন ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে, যাতে সংক্রমণের হার হু হু করে বেড়ে চলেছে। তবে গোটা ভারতে সেই নতুন স্ট্রেনের কারণে সংক্রমণ হচ্ছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।

বৃহস্পতিবার উদ্ধব ঠাকরে ঘোষণা করেন, পরিস্থিতি ভালো নয়। মহারাষ্ট্রের অন্যান্য জায়গায় লকডাউন হতে পারে, তৈরি থাকুন। সতর্কতা অবলম্বন করুন।

লকডাউনের ইঙ্গিত জোড়ালো হতেই, যে প্রশ্ন ঘনীভূত হচ্ছে তা হল, ফের কী তাহলে ভারতজুড়ে লকডাউন হতে পারে?  যত দ্রুত সম্ভব টিকা নেওয়ার দিকে জোর দিচ্ছে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২ হাজার ৮৫৪ জন। যার মধ্যে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৪ হাজার ৬২৮ জন। সুস্থ হয়েছ ১৮ হাজার ১০০ জন। মৃত্যু ১২৬ জন। সূত্র: জিনিউজ