বিএসএমএমইউ’র ৫৫৪ কর্মচারীর নিয়োগ বাতিল, বিবৃতিতে যা বললেন সিন্ডিকেটের ৭ সদস্য

মেয়াদের শেষ দিকে তাড়াহুড়ো করে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ৫৫৪ জন কর্মচারী নিয়োগ দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া। কিন্তু তাদের নিয়োগ ও নিয়মিতকরণ প্রক্রিয়া বাতিল ঘোষণা করা হয়। এ প্রসঙ্গে ব্যাখা ও বিবৃতি দিয়েছেন বিএসএমএমইউ’র সাত সিন্ডিকেট সদস্য।

বিবৃতিতে তারা বলেন, ‘বিভিন্ন দৈনিক এবং অনলাইন পত্রিকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ কতৃক প্রেরিত ‘সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়ার মেয়াদের শেষ দিকে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির বিভিন্ন পদে নিয়োগ ও নিয়মিতকরণে অনিয়মের প্রেক্ষিতে সিন্ডিকেটে বাতিল ও শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া রিভিউ করার সিদ্ধান্ত’ শিরোনামে একটি সংবাদ তাদের গোচরিতভূত হয়েছে।

বিএসএমএমইউ’র সিন্ডিকেট সদস্য হিসেবে এ সংবাদে তারা হতবাক ও বিস্মিত হয়েছেন। সিন্ডিকেট সভায় উপস্থিত সদস্যরা এ আলোচ্য বিষয় দুটির ওপর বিস্তারিত আলোচনা করেন এবং অভিযোগ সমূহ যাচাই বাছাইয়ের পর পরবর্তী সিন্ডিকেট সভায় উপস্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বিএসএমএমইউ’র বর্তমান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রেরিত বিবৃতিটি ব্যক্তিগতভাবে পূর্ববর্তী উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়াকে জনসমক্ষে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রয়াস বলে তারা মনে করেন, যা অনভিপ্রেত ও অগ্রহণযোগ্য। এ ধরনের কার্যক্রম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করবে বলে তারা মনে করেন । আশা করি পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দায়িত্বশীল আচরণ করবেন, বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী সাত সিন্ডিকেট সদস্য হলেন অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রহুল হক, অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ, মোল্লা জালাল, অধ্যাপক ডা. কাজী শহিদুল আলম, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, এবং অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া মেয়াদের শেষ দিনে সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদে ৩৬ জন শিক্ষকের নিয়োগ প্রক্রিয়া তড়িঘড়ি করে সম্পন্ন করেন। এছাড়া সাবেক উপাচার্য মেয়াদের শেষ দিনে তৃতীয় এবং চতুর্থ শ্রেণির ৫৫৪ জন কর্মচারীকে নিয়োগ ও নিয়মিতকরণের আদেশ দেন।

ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট উল্লেখিত নিয়োগ ও নিয়মিতকরণ প্রক্রিয়া বাতিল ঘোষণা করে এবং ৩৬ শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নেয়।

এদিন বেলা ১১টায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কনভেনশন সেন্টারে বিএসএমএমইউ’র ৮২তম সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ প্রশাসনিক বডি সিন্ডিকেটের সভায় সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।