বাগেরহাটে সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ

কুমিল্লার মুরাদনগরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘর ভাংচুর, আগুন দেয়াসহ বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ছাত্রদের বহিস্কার করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ।
আজ শনিবার সকালে বাগেরহাট শহরের সাধনার মোড়ে জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ এই মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ, জাতীয় হিন্দু মহাজোট ও মহিলা পরিষদ সংহতি প্রকাশ করে মানববন্ধনে অংশ নেয়।
মানববন্ধন থেকে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে নেতারা। সারাদেশে এক যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে এই সংগঠনটি।
সংগঠনের নেতাকর্মীরা নানা ধরনের স্লোগান সংবলিত হাতে লেখা পোষ্টার নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ জানায়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এই দেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এই দেশ থেকে সাম্প্রদায়িকতা রুখতে হবে। ফেইসবুকে ধর্ম অবমাননার গুজবে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর হামলা, লুটপাট, নির্যাতন করা হচ্ছে।সারাদেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের উপর নির্যাতন দিনদিন বেড়েই চলেছে। এই স্বাধীন দেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর দমন নিপীড়ন মোটেই কাম্য নয়। এই গোষ্টি সম্প্রতি ধর্মপ্রাণ মুসল্লি শহীদুন্নবীকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। এই গোষ্টিটি দিনদিন ধর্মের নামে মানুষকে হত্যা করছে। যারা ধর্ম অবমাননার গুজব তুলে সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান নেতারা।
মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বাগেরহাট জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শিবপ্রসাদ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিলন কুমার ব্যানার্জ্জী,বাগেরহাট ফাউন্ডেশন সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আহাদ উদ্দিন হায়দার.বাগেরহাট পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অমিত রায়, সাধারণ সম্পাদক অবণিষ চক্রবর্ত্তী সোনা, রনজিৎ কুমার মন্ডল. মহিলা পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সীতা রাণী দেবনাথ, বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উন্নয়ন কর্মী রিজিয়া পারভীন, রবিন মালো.অভিভাবক ফোরামের সদস্য সচিব কল্লোল সরকার . জাতীয় হিন্দু মহাজোটের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ দেবনাথ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দুলাল কৃষ্ণ মন্ডল, সাংগঠনিক সম্পাদক দ্বিগেন্দ্র নাথ হালদার.স্বপন দাস. বীর মুক্তিযোদ্ধা নকীব সিরাজুল ইসলাম.এ্যাড অমিতাভ বড়াল. দিলিপ বালা.প্রমূখ।