প্রিয় শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিনের জন্মদিন আজ

উপমহাদেশের জীবন্ত কিংবদন্তি সংগীতশিল্পীর জন্মদিন আজ। তার যাদুমাখা কণ্ঠে অসংখ্য গান কালজয়ী হয়ে আছে। অডিও ও প্লেব্যাক দুই ভবনে তার অবাধ বিচরণ।  তিনি হলেন গানের পাখি সাবিনা ইয়াসমিন।

১৯৫৪ সালের এই দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন সাবিনা ইয়াসমিন। বিশেষ এই দিনটিতে প্রিয় শিল্পীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পরিবার, বন্ধু-স্বজন ও ভক্তরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্ত অনুরাগীরা ছবি পোস্ট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

সাবিনা ইয়াসমিন সাতক্ষীরার সন্তান। বাবার নাম লুতফর রহমান ও মা বেগম মৌলুদা খাতুন। পাঁচ বোনের মাঝে চার বোনই ছিলেন গানের সাথে যুক্ত। তারা হলেন ফরিদা ইয়াসমিন, ফওজিয়া খান, নীলুফার ইয়াসমিন এবং সাবিনা ইয়াসমিন। সাবিনা ইয়াসমিনের রয়েছে এক কন্যা ফাইরুজ ইয়াসমিন ও এক পুত্র শ্রাবণ। ২০০৭ সালে সাবিনা ইয়াসমিন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে দেশের মানুষের দোয়ায় তিনি আবারো সবার মাঝে ফিরে আসেন।

বড় বোন প্রয়াত ফরিদা ইয়াসমিনের কাছে তার গানের হাতেখড়ি। তারপর ওস্তাদ পি সি গোমেজের কাছে একটানা ১৩ বছর তালিম নিয়েছেন। মাত্র ৭ বছর বয়সে স্টেজ প্রোগ্রামে অংশ নেন তিনি।

প্রয়াত বরেণ্য সুরকার-সংগীত পরিচালক রবিন ঘোষের সংগীত পরিচালনায় ‘নতুন সুর’ সিনেমাতে ১৯৬২ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে প্রথম গান করেন এই বরেণ্য শিল্পী। এরপর ১৯৬৭ সালে আমজাদ হোসেন ও নূরুল হক বাচ্চু পরিচালিত ‘আগুন নিয়ে খেলা’ সিনেমাতে আলতাফ মাহমুদের সংগীত পরিচালনায় ‘মধু জোছনা দীপালি’ গানটি গাওয়ার মাধ্যমে প্লেব্যাক সিংগার হিসেবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন সাবিনা ইয়াসমিন। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

১৯৮৪ সালে একুশে পদক, ১৯৯৬ সালে স্বাধীনতা পদকসহ সর্বোচ্চ ১৩ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন বরেণ্য এই শিল্পী। ১৯৭৫ সালে প্রমোদকার (খান আতাউর রহমানের ছদ্ম নাম) পরিচালিত ‘সুজন সখী’ সিনেমাতে গান গাওয়ার জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

এরপর আমজাদ হোসেনের ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’, ‘কসাই’, চাষী নজরুল ইসলামের ‘চন্দ্রনাথ’, মইনুল হোসেনের ‘প্রেমিক’, বুলবুল আহমেদ’র ‘রাজলক্ষী শ্রীকান্ত’ , আমজাদ হোসেনের ‘দুই জীবন’, কাজী হায়াৎ’র ‘দাঙ্গা’, মতিন রহমানের ‘রাধা কৃষ্ণ’, মোহাম্মদ হোসেন’র ‘আজ গায়ে হলুদ’ ও চাষী নজরুল ইসলামের ‘দেবদাস’ চলচ্চিত্রে প্লে-ব্যাক করার জন্য বিভিন্ন সময়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালে ‘পুত্র’ সিনেমার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন সাবিনা ইয়াসমিন।

দীর্ঘ সংগীত জীবনে ১৬ হাজারেরও বেশি গান গেয়েছেন বাংলা গানের খ্যাতনামা এই শিল্পী।