পাসপোর্ট নিয়ে বিপাকে কঙ্গনা

ব্যক্তিগত বলেন বা পেশাগত জীবন- সব ক্ষেত্রেই নিজের ইচ্ছামতো চলতে ভালোবাসেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা বিতর্কিত মন্তব্য করে হামেশাই ঝড় তোলেন তিনি। তবে এবার পাসপোর্ট নিয়ে বেশ বড় বিপাকে পড়েছেন এ অভিনেত্রী।

জানা যায়, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে নায়িকার পাসপোর্টের মেয়াদ ফুরিয়ে যায়। কিন্তু তা নবায়ন করতে পারছেন না তিনি। অনেক কাঠ-খড় পুড়িয়ে বোম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেও তাতেও লাভ হয়নি কোনো।

সম্প্রতি বোম্বে হাইকোর্টে পাসপোর্ট অফিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, পাসপোর্ট নবায়ন করার আবেদনপত্র ঠিক নেই। বেশ কিছু জায়গা বদলাতে হবে বলেও জানানো হয়। আবেদনপত্র খুঁটিয়ে দেখলে বোঝা যাবে তাতে বেশ কিছু অসংগতি রয়েছে। ফলে পাসপোর্ট অফিস নিয়মের বিরুদ্ধে যেতে পারবেন না, তাই এই বদলের পর অভিনেত্রীর এই ডকুমেন্ট নবায়ন করা সম্ভব হবে।

দেশটির পাসপোর্ট অফিসের অ্যাডিশনাল সলিসিটার জেনারেল অনিল সিং কঙ্গনাকে জানান, তার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা চলার ফলে মুম্বাই হাইকোর্টের নির্দেশ ছাড়া নবায়ন করা তাদের পক্ষে অসম্ভব। এর পরই মুম্বাই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন কঙ্গনা।

প্রসংগত কঙ্গনা ও তার দিদি রঙ্গোলির বিরুদ্ধে গত বছর এই মামলা করা হয়েছিল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাম্প্রদায়িকতার বিষ ছড়ানোয় ও ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার অভিযোগ ওঠে দুই বোনের বিরুদ্ধে।

এদিকে পাসপোর্ট রিনিউয়্যাল অথরিটির পক্ষে দুই বিচারককে জানানো হয়, কঙ্গনার বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল কেস থাকলেও তা এখনো প্রসেস হয়নি। পাসপোর্ট নবায়নের আবেদনপত্রে যে যে জায়গায় পরিবর্তন প্রয়োজন তা করলে পাসপোর্ট অফিসার কঙ্গনার আবেদনের বিষয়ে ভাববেন। এরপর হাইকোর্ট অসংগতি বদল করে ঠিক তথ্য তুলে ধরার নির্দেশ দেন। সূত্র : জিনিউজ।