নজরদারি করতে ব্রিটেনে বাড়িও কিনতে চেয়েছিলেন দুবাইয়ের শাসক

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম তার সাবেক স্ত্রী (ষষ্ঠ) প্রিন্সেস হায়া বি‌ন্‌ত আল-হুসেইনের ফোন হ্যাক করিয়েছিলেন। ইসরায়েলের তৈরি স্পাইওয়্যার পেগাসাস ব্যবহার করে তার এজেন্টরা এই হ্যাকিংয়ের কাজ করেন বলে বুধবার লন্ডনের একটি আদালত রায় দেন।

শুধু তাই নয়, আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাকতুম তার সাবেক স্ত্রীর বাড়ির পাশে ব্রিটেনের অন্যতম ব্যয়বহুল বাড়ি কেনার চেষ্টাও করেছিলেন। আল-মাকতুমের এজেন্ট ৪ কোটি ১০ লাখ ডলারের বিনিময়ে পার্কউড এস্টেট থেকে বাড়ি কিনতে চেয়েছিলেন।

বার্কশায়ারে হায়ার ক্যাসলউডের বাড়ির কাছে বাড়ি কেনার সবকিছু ঠিকঠাকও করে ফেলেছিলেন আল-মাকতুম। হায়া বাড়িটি তার বাবার কাছ থেকে উত্তরাধিকার সূত্রে পেয়েছিলেন। কিন্তু পরে আল-মাকতুমের তরফ থেকে ওই চুক্তি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

তার সাবেক স্ত্রী হায়া বিনতে আল-হুসাইন বিচ্ছেদ নিয়ে তার আইনি লড়াইয়ের অংশ হিসেবে লন্ডনের উচ্চ আদালতে বিষয়টি উত্থাপন করেন বলে মামলার রায় প্রকাশের পর জানা যায়।

২০১৯ সালে হায়া ইংল্যান্ডে পালিয়ে আসার পর থেকেই আমিরাতের শাসক আল-মাকতুম তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছেন বলে বিচারক অ্যান্ড্রু ম্যাকফারলান জানিয়েছেন। আল-মাকতুন ওই বাড়ি কিনে হায়ার ওপর নজরদারি করতেন কিংবা তাদের দুই সন্তানকে অপহরণের চেষ্টা করতেন বলে আশঙ্কা করেছেন তিনি।

আদালতে জমা দেওয়া লিখিত বিবৃতিতে হায়া জানান, আমার মনে হতো আমার ওপর নজদারি করা হচ্ছে। হায়ার আইনজীবী জানান, ২০১৯ সালের শেষের দিকে তারা প্রথমবারের মতো শেখের বাড়ি কেনার পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন। তবে বিষয়টি শেখের আইনজীবীদের কাছ থেকে নিশ্চিত হতে পারেননি তিনি। ২০২০ সালের শেষের দিকে হায়া একটি বিশ্বস্ত সূত্রে শেখের বাড়ি কেনার বিষয়টি নিশ্চিত হন।

সূত্র : রয়টার্স