দ্বিতীয়বারের মতো ইসরায়েলকে সমর্থন দিল ভারত

ফিলিস্তিনের ওপর ইসরায়েলের রক্তক্ষয়ী সংঘাতের বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য জেনেভায় অবস্থিত জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদ (ইউএনএইচআরসি) বিশেষ কমিটি গঠন করে।

মানবাধিকার পরিষদের মোট ৪৭ সদস্যের মধ্যে ২৪টি দেশ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেয়। বিপক্ষে ভোট পড়েছে নয়টি দেশের। তবে নিরাপত্তা পরিষদের সদর দফতরের অনুষ্ঠিত এই সংক্রান্ত ভোটাভুটিতে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থেকেছে ভারত। এছাড়াও ভোটদান থেকে বিরত থেকেছে আরও ১৪ দেশ।

প্রস্তাবটি পাস হওয়ায় এবার গাজা ও জেরুজালেমসহ বিভিন্ন স্থানে মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে তদন্ত শুরু করতে চলেছে মানবাধিকার পরিষদ। কিন্তু মানবাধিকার সংক্রান্ত এই প্রস্তাবের তীব্র নিন্দা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে জার্মানি, ইংল্যান্ড, অস্ট্রিয়াও।
অন্যদিকে, মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে তদন্তের পক্ষে সায় দিয়ে প্রস্তাবটিকে সমর্থন জানিয়েছে পাকিস্তান, চীন এবং বাংলাদেশ। ভারতের পাশাপাশি ভোট দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে ফ্রান্স, ইতালি, জাপান, নেপাল নেদারল্যান্ডস, পোল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশ।

মানবাধিকার পরিষদের প্রস্তাব ‘ইসরায়েল বিরোধী’ ও ‘লজ্জাজনক’ বলে অভিযোগ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। বিশ্লেষকদের মতে, ‘সব মিলিয়ে ইসরায়েল ও হামাসের দ্বন্দ্বে পুরো বিশ্ব দু’ভাগে ভাগ হয়ে গেছে। পরিষদের প্রস্তাবে ভোটদান থেকে বিরত থেকে ইসরায়েলের পক্ষেই মৌন সমর্থন জানিয়েছে ভারত।’