দেশে প্রথমবারের মত ২ কোটি ২৯ লাখ টাকা ভ্যাট দিল গুগল

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল ২ কোটি ২৯ লাখ টাকার মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট প্রদান করেছে। বৃহস্পতিবার মে ও জুন মাসের ভ্যাটের রিটার্ন দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি সরকারি কোষাগারে এই টাকা জমা করল।
ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেট জানায়, গত মে মাসের ভ্যাট রিটার্নের বিপরীতে ৫৫ লাখ ৭৭ হাজার ৭০৪ টাকা ভ্যাট দিয়েছে। আর জুন মাসের রিটার্নের বিপরীতে দিয়েছে ১ কোটি ৭৩ লাখ ৭৬ হাজার ৮৩২ টাকা। সিঙ্গাপুরের সিটিব্যাংকএনএ এর  শাখা থেকে ভ্যাটের টাকা পরিশোধ করা হয়েছে।
গত ২৩ মে প্রথম অনাবাসী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গুগল ভ্যাটের নিবন্ধন নেয়। কিন্তু প্রস্তুতির জন্য মে ও জুন মাসের রিটার্ন জমার জন্য সময় চেয়েছিল গুগল। ভ্যাট বিভাগ সেই আবেদনে সাড়া দেয়। এখন ওই দুই মাসের রিটার্ন জমা দিল গুগল।
ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার এস এম হুমায়ন কবির বাসসকে বলেন,‘গুগলের কাছ থেকে ভ্যাট রিটার্ন আসায় প্রতিষ্ঠানটির কমপ্লায়েন্স হওয়ার ক্ষেত্রে আরও সুবিধা হবে।’ আবার তাদের লেনদেনের যাবতীয় তথ্য যাচাইবাছাই করাটাও সহজ হবে।
এর আগে গত মাসে প্রথমবারের মতো কোনো অনাবাসী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ফেসবৃক ভ্যাট রিটান দিয়ে ২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দিয়েছিল। এ পর্যন্ত চারটি অনাবাসী প্রতিষ্ঠান ভ্যাটের নিবন্ধন নিয়েছে। গুগল ছাড়া অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো হলো ফেসবুক, আমাজন ও মাইক্রোসফট। অনাবাসী প্রতিষ্ঠান বলতে বোঝায় বাংলাদেশে ব্যবসা করে, কিন্তু এ দেশে কোনো কার্যালয় নেই।
অনাবাসী প্রতিষ্ঠানগুলো এ দেশে বিজ্ঞাপন প্রচারসহ নিজেদের নানা ধরনের সেবা দিয়ে থাকে। এসব সেবা নিয়ে গ্রাহকেরা ক্রেডিট কার্ড বা অন্য কোনো উপায়ে ব্যাংকের মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করে থাকেন। তখন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ স্বয়ংক্রিয়ভাবে ১৫ শতাংশ ভ্যাট কেটে রাখে। ভ্যাট কেটে না রাখলে বাংলাদেশ ব্যাংক বিদেশে ওই প্রতিষ্ঠানের অর্থ পাঠানোর অনুমতি দেয় না। ভ্যাট নিবন্ধন নেওয়ার ফলে প্রতিষ্ঠান কত টাকার সেবা বিক্রি করেছে, সেই তথ্যসহ যাবতীয় আয়-ব্যয়ের তথ্য জানিয়ে ভ্যাট রিটার্ন দিতে হবে।