দেশে পরীক্ষামূলকভাবে ৫জি সেবা চালু হচ্ছে ডিসেম্বরে

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ৫জি নেটওয়ার্কের প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। আগামী ১২ বা ১৬ ডিসেম্বর পরীক্ষামূলকভাবে টেলিটক মোবাইল ফোন অপারেটর দেশে ৫জি চালু করবে।

আজ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ‘ফাইভজি ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ অ্যান্ড আপকামিং টেকনোলজিস’ শীর্ষক একটি ওয়েবিনারে তিনি এ তথ্য জানান।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, হুট করে বা খুব দ্রুত আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে ৫জি চালু করছি বিষয়টা এমন নয়। আমরা অনেক দিন থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছি। কোন তারিখে ৫জি উদ্বোধন করা হবে তা এখন বলতে পারছি না, তবে ডিসেম্বর মাসে অনেকগুলো উৎসবের দিন রয়েছে, সেসব দিনের মধ্যে একটা দিনে উদ্বোধন করা হবে।

তিনি আরো বলেন, ৫জি ডিভাইসের সংকটের কথা বলা হচ্ছে। ৫জি পুরোপুরি চালুর আগেই দেশে ডিভাইস সংকট থাকবে না। এখনই বাংলাদেশে ৫জি স্মার্টফোন তৈরি হচ্ছে। চাহিদার ৯০ শতাংশ ৪জি স্মার্টফোন এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, ৫টি ইকোনমিক জোনে ৫জি নেটওয়ার্ক দেওয়ার কাজ চলছে। আমাদের অনেক পার্টনার রয়েছে তাদের কথাও আমরা চিন্তা করছি। সবকিছু মিলিয়ে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। ৫জি কে ঘিরে জনগণের প্রয়োজন ও চাহিদাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির কমিশনার এ কে এম শহীদুজ্জামান, টেলিটক ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাহাব উদ্দীন, বাংলালিংক সিইও অ্যান্ড চেয়ারম্যান এমটব এরিক অস, গ্রামীণফোন সিইও ইয়াসির আজমান, রবি ভারপ্রাপ্ত সিইও, রিয়াজ রশীদসহ অনেকে।