চীনের সিনোফার্মের টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় রাশিয়ার টিকা ‘স্পুটনিক ভি’ অনুমোদনের পর চীনা কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি করোনা ভাইরাসের টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। বৃহস্পতিবার ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা রাশিয়া, চীনের ভ্যাকসিন অনুমোদন দিয়েছি। বাংলাদেশের কোনো কোম্পানি চাইলে রাশিয়া ও চীনের টিকা উৎপাদনের অনুমতি দেওয়া হবে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে ডোজগুলো বিদেশেও রপ্তানি করা যাবে।

জাহিদ মালেক বলেন, টিকা সংকট নিরসনে চীন রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। আশা করি, টিকার কোনো সংকট থাকবে না। আগামী মাসে রাশিয়া ও চীন থেকে আমরা টিকা পাব।

তিনি বলেন, ‘আজকে আমরা সিনোফার্মের টিকার অনুমোদন দিলাম। এই টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজ দিতে হবে।’

রাশিয়ার ‘স্পুৎনিক-ভির’ পর এবার এই টিকার অনুমোদন দেওয়া হলো। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকার টিকার সরবরাহ সঙ্কটে টিকাদান কার্যক্রম নিয়ে জটিলতার মধ্যে দ্রুত দুটি নতুন টিকার অনুমোদন দিলো সরকার।