চিনকে ঘিরতে জাপানের সাথে বড় চুক্তি করতে চলেছে ভারত, ভারত মহাসাগরে দাপিয়ে বেড়াবে ভারতীয় নৌসেনা


নয়া দিল্লীঃ প্রতিদিনই নতুন করে ভারত (India) আর চিনের (China) উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। কখনো লাদাখ সীমান্তে আবার কখনো অরুণাচল অথবা উত্তরাখণ্ড। ভারতের প্রতিটি পদক্ষেপেই আপত্তি জাহির করছে চিন। এমনকি ভারতকে হুঁশিয়ারি দেওয়ার সুযোগও ছাড়ছে না তাঁরা। যদিও ভারত তাদের আপত্তি আর হুঁশিয়ারি কোন কিছুকেই পাত্তা দিচ্ছে না।

আর এবার চিনকে চাপে রাখতে উদীয়মান সূর্যের দেশ জাপানের (Japan) সাথে প্রতিরক্ষা চুক্তি করতে চলেছে ভারত। প্রতিরক্ষা সুত্রের খবর অনুযায়ী, ভারত মহাসাগর এলাকায় চিনের আগ্রাসন ঠেকাতে খুব শীঘ্রই জাপানের সাথে পারস্পরিক কৌশলগত সহযোগিতা (MLSA) চুক্তি করতে চলেছে ভারত।

প্রসঙ্গত, গতকাল অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর সাথে এই একই চুক্তি করেছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই চুক্তির ফলে দুই দেশই একে অপরের সেনাঘাঁটি ব্যবহার করতে পারবে। এই চুক্তির ফলে ভারত মহাসাগর ও দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে দুই দেশেরই শক্তি অনেকটাই বৃদ্ধি পাবে।

অস্ট্রেলিয়ার সাথে হওয়া এই চুক্তির পর তাদের সেনাঘাঁটি ব্যবহার করে দুটি মহাসাগরে অবাধে পাড়ি দিতে পারবে ভারতের নৌসেনা। আর এর ফলে চিনের নৌসেনাকে যোগ্য জবাব দিতে অনেক সহজ হয়ে যাবে ভারতের। যদিও এটাই প্রথম না। এর আগেই আমেরিকা, ফ্রান্স, দক্ষিণ কোরিয়া আর সিঙ্গাপুরের সাথে চুক্তি করেছিল ভারত।

ওই চুক্তির ফলে ওই দেশ গুলোর নৌসেনাঘাঁটি সহজেই ব্যবহার করতে পারবে ভারত। এর সাথে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভিয়েতনামের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপন করার চেষ্টা চালাচ্ছে ভারত। শোনা যাচ্ছে ভিয়েতনামকে মারক স্বদেশী মিসাইল আকাশ সরবরাহ করতে চলেছে ভারত।

বিশেষজ্ঞদের মতে চিনের বিরুদ্ধে মাথা তুলে দাঁড়াতে ভারত একের পর এক দেশের সাথে সামরিক চুক্তির পাশাপাশি সুসম্পর্ক স্থাপন করার চেষ্টা করে চলেছে। আর সেই চুক্তির নতুন সংযোজন হল জাপান। ভারত আর জাপানের মধ্যে এই চুক্তি হলে, ড্রাগনের দেশ চিন যে বড় বিপদে পড়তে চলেছে, সেটা বলাই বাহুল্য।