খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি আলুর দাম ৩৫ টাকা পুনঃনির্ধারণ

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আলুর দাম কোল্ড স্টোরেজ পর্যায়ে প্রতি কেজি ২৭ টাকা, পাইকারি পর্যায়ে ৩০ টাকা এবং খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি ৩৫ টাকা পুনঃনির্ধারণ করেছে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা কৃষি বিপণন অধিদপ্তর।
কৃষি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে এবং কৃষি বিপণন আইন-২০১৮ এর ধারা ৪(ঝ) অনুযায়ী এই দাম নির্ধারণ করা হয়।
আজ কৃষি মন্ত্রনালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আলুর বাজার স্থিতিশীল রাখতে আজ বিকালে কৃষি বিপণন অধিদপ্তরে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এ দাম নির্ধারণে সুপারিশ করা হয়।
কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফের সভাপতিত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশন এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধিবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া, বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেজ এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট, কাওরান বাজার এবং শ্যামবাজারের আলুর পাইকার ও আড়তদারগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।
এই নির্ধারিত মূল্যে কোল্ড স্টোরেজ, পাইকারি এবং খুচরা পর্যায়ের বিক্রেতাসহ ত্রিপক্ষই যেন আলু বিক্রয় করেন সেজন্য কঠোর মনিটরিং ও নজরদারির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সকল জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করেছে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর।
এরআগে, আলুর দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ৭ অক্টোবর আলুর দাম কোল্ড স্টোরেজ পর্যায়ে প্রতি কেজি ২৩ টাকা, পাইকারি পর্যায়ে প্রতি কেজি ২৫ টাকা এবং খুচরা পর্যায়ে প্রতি কেজি ৩০ টাকা নির্ধারণ করেছিল কৃষি বিপণন অধিদপ্তর।