করোনা নিয়ন্ত্রণ না করলে কঠিন পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে করোনা সংক্রমণ কমে আসছে, এখন মৃত্যুহার আরো কমাতে হবে। এ জন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে করোনা ও ডেঙ্গু মোকাবেলার চ্যালেঞ্জ নিয়ে এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, হাসপাতালগুলো আর রোগী সংকুলান করতে পারছে না। তবে আমাদের সরকার পরিস্থিতি উত্তরণে সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাচ্ছে।

জাহিদ মালেক বলেন, সারা দেশে আমাদের টিকা কার্যক্রম চলছে। এটি চলমান থাকবে। এক সপ্তাহের মধ্যে ৫৪ লাখ ডোজ টিকা আসবে। পরের সপ্তাহে আবার ৫০ লাখ ডোজ আসবে। সব মিলিয়ে এ মাসেই এক কোটি ডোজ টিকা আসবে। এ পর্যন্ত পৌনে দুই কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। কোটি কোটি লোক নিবন্ধন করেছে। সবারই টিকা প্রয়োজন। ২৬-২৭ কোটি টিকা লাগবে। আমরা চেষ্টা করছি। পর্যায়ক্রমে সবাই টিকা পাবেন, ধৈর্য ধরতে হবে।

টিকা নিয়ে আন্তর্জাতিক রাজনীতি চলছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বড় বড় দেশগুলো তাদের জনসংখ্যার চার-পাঁচ গুণ বেশি টিকা মজুদ করেছে, আমরা সাধ্যমতো কিনে আনার চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, চিকিৎসা ব্যবস্থাপনার ওপর চাপ কমাতে সংক্রমণের উৎস বন্ধ করতে হবে। করোনা নিয়ন্ত্রণ না করলে কঠিন পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে। করোনা নিয়ন্ত্রণ না হলে অর্থনীতি খারাপ হবে। করোনা নিয়ন্ত্রণ না করতে পারলে মৃত্যু বাড়বে, অর্থনীতি ভেঙে পড়বে। দরিদ্রতা বাড়বে। কর্মহীন হয়ে পড়বে মানুষ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ বিল্লাল। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার খুরশীদ আলম, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ।