উহান থেকে লকডাউন প্রত্যাহার

বিশ্বজুড়ে ভয়ঙ্কর রূপে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের জন্ম হয়েছিল যে শহরে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পর চীনের সেই উহান শহর থেকে ‘লকডাউন’ প্রত্যাহার  করে জনসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। মানুষকে উহানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তবে এখন পর্যন্ত উহান শহর এলাকার বাইরে যাতায়াতের অনুমতি কাউকে দেওয়া হয়নি বলে বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে এই উহান শহরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রথম খবর পাওয়া যায়। দীর্ঘ দুই মাসেরও বেশি সময় পুরো শহরকে আইসোলেশনে রাখার পর শনিবার সবার জন্য তা উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।

লকডাউন তুলে নেয়ার ঘোষণার পর পরই যাত্রা পথে অনেক যাত্রী ট্রেনস্টেশনসহ বিভিন্ন স্পটের ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন। চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে এখন পর্যন্ত ৫০ হাজারেরও বেশি লোক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে কমপক্ষে ৩ হাজার জন মারা গেছে।

গবেষকরা জানিয়েছেন, চীনের উহানে নাটকীয়ভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। যদিও শনিবার এক বিবৃতিতে কর্তৃপক্ষ বলছে, নতুন করে ৫০ জনের সংক্রমিত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। তবে তারা সবাই সম্প্রতি বাইরে থেকে উহানে এসেছেন।

উহানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে পুরোপুরি রেহাই পেতে এই সময়ে বিদেশি পর্যটকদের ভিসা প্রক্রিয়াকরণ ও আবাসনের অনুমতি থাকলেও তাদের সেখানে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে বলে জানিয়েছে চীন।

দেশটির বিমান সংস্থাগুলো বলছে, আপাতত সপ্তাহে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবেন তারা। চীনের এই শহরটি করোনা ভাইরাসের প্রকোপমুক্ত হলেও সারাবিশ্বে আতঙ্ক ছড়িয়ে চলছে ভাইরাসটি। শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এতে আক্রান্ত হয়েছে ৬ লক্ষাধিক মানুষ। মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২৮ হাজারের বেশি মানুষের।