ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের তুমুল সংঘাত থামাতে তেল আবিবে মার্কিন প্রতিনিধি

গত ছয় দিন ধরে তুমুল সংঘাত চলছে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে। এরই মধ্যে ইসরায়েলের মুহুর্মুহু ক্ষেপণাস্ত্র ও বোমা হামলায় ৪০ শিশুসহ ১৩৯ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।

জবাবে ফিলিস্তিন প্রতিরোধ সংগঠন হামাসও ইসরায়েলে রকেট হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। সেখানে নিহত হয়েছে আটজন।

ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনের মধ্যে চলমান এই উত্তেজনা প্রশমিত করতে তেল আবিবে পৌঁছেছেন মার্কিন কূটনৈতিক প্রতিনিধি হাদি ওমর। খবর বিবিসির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিনি ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি জাতিসংঘ প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক করবেন।

এমন পরিস্থিতিতে জো বাইডেন চেষ্টা করছেন দুই দেশকে শান্ত করতে। অন্যদিকে আবার আকারে-ইঙ্গিতে তিনি ইসরায়েলের পক্ষে কথা বলেছেন।

বাইডেন দুদিন আগে বলেন, ফিলিস্তিন রকেট ছুঁড়লে ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকার আছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইসরায়েল দূতাবাস টুইটে জানিয়েছে, সমস্যা সমাধানের প্রত্যাশায় ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিন বিষয়ক কূটনৈতিক তেল আবিবে পা রেখেছেন।

দূতাবাসের পক্ষ থেকেও বাইডেনের মতো ইসরায়েলের আত্মরক্ষার বিষয়টি সামনে আনা হয়েছে।

ইসরায়েল এবং ফিলিস্তিনিদের বিরোধ যুগ-যুগ ধরে চলে আসছে। ইসরায়েলি উগ্রবাদীদের হাতে প্রতি বছর শতশত নিরীহ ফিলিস্তিনি মারা যান।

দুই দেশের মধ্যে নতুন করে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে ‘জেরুজালেম দখল দিবস’ উদযাপন এবং শেখ জাররাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনি বাসিন্দাদের উচ্ছেদ ঘিরে। এরপর আল-আকসা মসজিদের মুসল্লিদের ওপর কয়েক দফা হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এতে সাত শতাধিক মুসল্লি আহত হন।