আমাদের স্বাস্থ্যসেবা উন্নত দেশগুলোকেও হার মানিয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণে সারাবিশ্ব আতঙ্কে। যেসব রাষ্ট্রে টাকা-পয়সার অভাব নেই, যন্ত্রপাতির অভাব নেই- তারাও করোনা সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। তবে বাংলাদেশের চিকিৎসাসেবা উন্নত রাষ্ট্রগুলোকেও হার মানিয়েছে। করোনা মোকাবিলায় সারাবিশ্বে বাংলাদেশ একটি রোল মডেল। জনসংখ্যার ঘনত্বে আমাদের দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুহার অনেক কম।

আজ শনিবার বিকেলে মানিকগঞ্জের ২৫০ শয্যা হাসপাতালে কর্নেল মালেক মেডিক্যাল কলেজের বেইজ সেন্টার উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত মাস্কই করোনা প্রতিরোধের সর্বোত্তম উপায়। তাই আমাদের করোনা যুদ্ধে টিকে থাকতে হলে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। সকলেই স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক ব্যবহার করলে আমাদের দেশ থেকে করোনা আরো আগেই বিদায় নিতো। আমাদের স্বাস্থ্যসেবা ভালো আছে বলেই দেশে সব কর্মকাণ্ড স্বাভাবিক আছে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় প্রধান হাতিয়ার মাস্ক ব্যবহার। দেশে করোনা সংক্রমণ দ্বিতীয় তরঙ্গের প্রকোপ লক্ষ্য করা গেছে। সরকারি পদক্ষেপের সহযোগিতায় সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, দেশে ৩৮টি মেডিক্যাল কলেজ ২০-২২টি ইনস্টিটিউট জেলা-উপজেলা ও প্রত্যন্ত এলাকায় হাসপাতালের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া হচ্ছে। দেশে সাড়ে ৮ লাখ মানুষের অন্ধত্ব রয়েছে। এদের চিকিৎসার জন্য সরকার কমিউটিনি ভিশন সেন্টার চালু করেছে। এই কমিউনিটি ভিশনের মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষজন বিশেষজ্ঞ চক্ষু ডাক্তারের সেবা পাবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী চিকিৎসা আজ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ওয়াজ মাহফিল, পূজা, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, বিয়ে-শাদী সব অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।