‘আপন কর্মমহিমায় শেখ হাসিনা বাংলাদেশের নতুন ইতিহাস নির্মাতা’

‘আপন কর্মমহিমায় শেখ হাসিনা হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশের নতুন ইতিহাসের নির্মাতা, হিমাদ্রি শেখর সফলতার মূর্ত-স্মারক, উন্নয়নের কাণ্ডারি।’

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আজ  সোমবার (১৭ মে) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে  ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনাসভায় এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে করোনাসংকট মোকাবেলা করে বাংলাদেশ আজ কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির অভিযাত্রায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে যেতে সক্ষম হবে। ‘৭৫-পরবর্তী বাংলাদেশে সবচেয়ে সৎ, সাহসী ও মানবিক নেতা শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ আজ শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বিশ্বের বিস্ময়।’ তিনি বলেন, ‘আপন কর্মমহিমায় শেখ হাসিনা হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশের নতুন ইতিহাসের নির্মাতা, হিমাদ্রি শেখর সফলতার মূর্ত-স্মারক, উন্নয়নের কাণ্ডারি।’

‘আওয়ামী লীগের ঐক্যের প্রতীক হিসেবে শেখ হাসিনা গত চার দশক ধরে দলকে সফলভাবে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন’ উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনা দীর্ঘ পথ অতিক্রম করে ধ্বংসস্তূপের ওপর দাঁড়িয়ে বারবার জীবনের জয়গান গেয়েছেন।’ তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি আর উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে শেখ হাসিনার নাম চিরভাস্বর হয়ে থাকবে। তার মতো দূরদর্শী নেতৃত্ব আছে বলেই বাংলাদেশ আজ সঠিক পথে এগিয়ে চলছে।’ ‌

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনা ফিরে এসেছিলেন বলেই ঢাকায় আজ তরুণ প্রজন্মের মেট্রো রেল, নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর কাজ এখন শেষ পর্যায়ে, সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৮৫ ভাগ।’  আগামী বছরের জুনে এই সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

‘শেখ হাসিনা ফিরে এসেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা শেখ হাসিনার সাফল্যের মুকুটে যুক্ত আরো একটি সোনালি পালক।’ তিনি বলেন, ‘আপসহীন কাণ্ডারি হিসেবে উন্নয়নের মহাসড়ক ধরে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে নিয়ে যাচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা অভিমুখে।’

খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘মানবিকতা আছে বলেই শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে মুক্তি দিয়েছেন।’ বিএনপি নেতাদের প্রতি প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, ‘এটা কি মানবিকতা নয়? এই মানবিকতার একটা প্রশংসাও বিএনপি নেতারা করেননি।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাদেক খানের সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ প্রান্তে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম প্রমুখ বক্তব্য দেন।