অর্ধেক বাস কীভাবে চলবে, ঠিক করবে স্থানীয় প্রশাসন: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

চলমান বিধি-নিষেধ শিথিল করার পর সড়ক পথে অর্ধেক বাসে আসনের সমপরিমাণ যাত্রী নিয়ে চলার অনুমতি দিয়েছে সরকার। তবে সেই অর্ধেক সংখ্যা কীভাবে নির্ধারিত হবে সে প্রসঙ্গে কথা বলেছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানিয়েছেন, বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসন বাস মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে বসে ঠিক করে দেবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (৯ আগস্ট) ভার্চ্যুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

আগামী ১১ আগস্ট থেকে বিধি-নিষেধ শিথিল করে রবিবার (৮ আগস্ট) প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। সেখানে বলা হয়, সড়ক, রেল ও নৌ-পথে আসন সংখ্যার সমপরিমাণ যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন/যানবাহন চলাচল করতে পারবে। সড়ক পথে গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন (সিটি করপোরেশন এলাকায় বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক) নিজ নিজ অধিক্ষেত্রের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সংশ্লিষ্ট দপ্তর/সংস্থা, মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিদিন মোট পরিবহন সংখ্যার অর্ধেক চালু করতে পারবে।

অর্ধেক বাস চলবে, এর যুক্তি কী- এ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটা আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থেকে সাজেশন দেওয়া হয়েছে। তারা জেলা পর্যায়ে ডিসি, এসপি বা পরিবহন সংক্রান্ত মালিক অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে বসে ঠিক করে দেবে, অর্ধেক বাস আজকে চলবে, পরে বাকিগুলো চলবে।

অফিস-আদালত খোলার পর বাসের সংখ্যা কম হলে তো চাপ বাড়বে- এ নিয়ে তিনি বলেন, এটা মেইনলি আন্তঃজেলা বাসের জন্য বলেছে। বাইরে থেকে তো কম লোক আসে। তবে আমরা স্থানীয় প্রশাসনের ওপর ছেড়ে দিয়েছি।

এটা তদারকি কীভাবে করবেন- এ নিয়ে তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, মালিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের সঙ্গে বসে ঠিক করবেন। উনারা একটা পদ্ধতি বের করবেন। বেইজিংয়ে দেখেছি একদিন এ নম্বর আসে, আরেক দিন আরেক নম্বর। সিটি সার্ভিসের বিষয়ে কী হবে- এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটাও মেট্রোপলিটন পুলিশ, মালিক সমিতি, বিআরটিএ বসে সিদ্ধান্ত দেবে।

বাসের সংখ্যা কম হলে সিটের বাইরে দাঁড়িয়ে লোক ওঠানোর বিষয়ে তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বলা হয়েছে যেকোনো ক্ষেত্রে লঙ্ঘন করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।