অনেক দুঃখে যুবরাজ বললেন, ‘পরের জন্মে টেস্ট খেলব’

রঙ্গিন পোশাকে জাতীয় দলে ব্রাত্য হতে হতে ক্ষোভে দুঃখে ২০১৯ সালে ক্রিকেটকে বিদায় বলে দেন যুবরাজ সিং। ভারতের বিশ্বকাপজয়ী এই অল-রাউন্ডার আরও আগে থেকেই টেস্ট দলে সুযোগ পাননি। শেষ টেস্ট খেলেছিলেন ২০১২ সালে। অবসরের পরেও সেই দুঃখটা ভুলতে পারেননি। যুবরাজের এক টুইটে ফুটে উঠল টেস্ট খেলতে না পারার আক্ষেপ।

কয়েকদিন আগে একটি সংবাদ সংস্থা টুইটারে লিখেছিল, ‘ভারতের কোন সাবেক ক্রিকেটার আরও বেশি টেস্ট খেলতে পারতেন?’ সেই টুইট শেয়ার করে যুবরাজ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই) খোঁচা দিয়ে লিখেছেন, ‘আশা করি পরের জন্মে আরও বেশি টেস্ট খেলতে পারব। তখন হয়তো ৭ বছর ধরে আমাকে দ্বাদশ ব্যক্তি হিসেবে থাকতে হবে না।’

তবে পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে দেখা যায়, টেস্ট ক্রিকেটে তেমন সাফল্য পাননি যুবরাজ। ৪০ টেস্টে ৩ সেঞ্চুরি আর ১১টি হাফ সেঞ্চুরিতে তার সংগ্রহ ১৯০০ রান। অবশ্য তার ঘনিষ্ঠদের দাবি, টেস্ট দলে একাধিক তারকা থাকার জন্য এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে পর্যাপ্ত সুযোগ দেওয়া হয়নি। আর তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও যুবরাজের টেস্ট না খেলার হতাশা আছে।