অত্যাধুনিক মিসাইলের সফল পরীক্ষা চালাল ভারত

প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভরশীল হওয়ার পথে আরও এগিয়ে গেল ভারত। এবার অত্যাধুনিক ‘আকাশ প্রাইম’ মিসাইলের সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করল দেশটির প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা ডিআরডিও।

সোমবার উড়িষ্যার চাঁদিপুরে ইন্টিগ্রেটেড মিসাইল টেস্ট রেঞ্জ থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়। আকাশ মিসাইলের নতুন সংস্করণ আকাশ প্রাইম মিসাইলটি সেই পরীক্ষাতেও সাফল্যের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়েছে, যা প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থাকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল।

জানা গেছে, অকাশ প্রাইম মিসাইলটিতে রয়েছে অত্যাধুনিক ‘রেডিও ফ্রিকুয়েন্সি সিকার’। এই যন্ত্রের মাধ্যমে লক্ষ্যবস্তুকে সহজেই খুঁজে বের করতে সক্ষম হয় ক্ষেপণাস্ত্রটি। এটি অতিউচ্চতায় কম তামপাত্রায় কাজ করতে সক্ষম। পরীক্ষার সময় রাডার, ইলেক্ট্রো-অপটিক্যাল টার্গেটিং সিস্টেম ও টেলিমেট্রি স্টেশন-সহ পরীক্ষার জায়গায় রেঞ্জ স্টেশগুলো ক্ষেপণাস্ত্রের গতিপথ ও ফ্লাইটের ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে।

২০১৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে স্থলসেনা ও বায়ুসেনায় অন্তর্ভুক্ত হয় আকাশ মিসাইল সিস্টেম। এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্রহ্মস-এর মতোই সুপারসনিক। এর সর্বাধিক গতি হল ২.৫ ম্যাক (৩০৮৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা)। এটি মধ্যম পাল্লার মিসাইল, যেটা ২৫ কিমি পর্যন্ত দূরে থাকা লক্ষ্যকে সহজেই ধ্বংস করতে পারবে। ৬০ কিলোগ্রাম পর্যন্ত বিস্ফোরক বহন করতে সক্ষম আকাশ মিসাইল। এই অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি যুদ্ধবিমান, ড্রোন, ক্রুজ মিসাইল নিমেষে ধ্বংস করতে সক্ষম। অকাশ প্রাইম সেই সংস্করণের আরও আধুনিক রূপ। সূত্র: এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইমসটাইমস অব ইন্ডিয়া